আমার আকাশে সে সকাল সাঁজে – শুভ্র ভৌমিক জয়

আমার আকাশে সে সকাল সাঁজে – শুভ্র ভৌমিক জয়

আমার আকাশে সে সকাল সাঁজে;
  – শুভ্র ভৌমিক জয়

নবাগত সময়কাল পিঠাপুলির আমেজে;
ছন্দে ছন্নছাড়া এক যুবক ভেসে।
শীতল ঘন তুষার পথে হাঁটছি আমি
বিষাদময় কিছু অতীতকে সঙ্গে নিয়ে।।

 

ভিজিতেছি দু’চোখ নিষিদ্ধ সেই বেলায়
ধরণীর নিজ ছোট্ট এই মহাকালের গর্ভে
সৃষ্টির মাঝে পেয়েছি যে শ্রেষ্ঠ নক্ষত্রটাকে
দিন শেষে শ্রেষ্ঠই ঘুরছে কৃষ্ণ বলয় ভেসে।।

 

শীতলবেলায় হারানো দিনের স্মৃতিকাব্য নিয়ে
পথে ধারে বসেছি আমি নবীন পথিক রুপে
স্থিরউদ্যোমে অসমাপ্ত কাব্যের শেষটা লিখতে..

 

সময়কাল অনুমানিক বছর তিন-এক হবে
বেঁধেছিল এক নবীন বাঁধ বৈশাখী আগমনে
বুনন চলছিলো এক আনন্দঘন সপ্ন পথের
কাল বৈশাখী উচ্ছাসের নবীন মায়া জালে।।

 

কেটেছে দিন ফুরিছে কাল কিছুটা মিশ্রভেদে
এমন করে বছর দু’তিন পার একেলা-সীঙ্গনে
কালগুলোর সেই নক্ষত্র অপূর্নতায় এসেছে..
কত-শত অভিযোগ আর সহনীয় বেদনাদ্বারে।

 

সময় এসেছে ফুরিয়ে আজ কালের বিবর্তনে
আজ নাকি যেতে হবে তার নিজের কক্ষপথে
রাখিতে পারিনি তাকে শ্রাবণ মেঘের দিনে
স্তব্ধ হয়েছি ‘ও আমায় ভালোবাসে নি’ বলে।।

 

আজ ফুরিয়েছে সময় জুরিয়েছে জ্বাল
আজ সে কঠিন প্রতিজ্ঞায় ফেরার বাহানায়
শৈল্পিক ছোঁয়ায় আমারই নিকট আবেশে।
আমি তাই এই কাব্যের শেষটা লিখছি বসে
আমার আকাশে সে এখন সকাল সাঁজে।।
Headlines
error: আপনি আমাদের লেখা কপি করতে পারবেন নাহ। Email: Info@mirchapter.com