বৃষ্টির রাত।- মীর সজিব।

রাতে বৃষ্টি হলেই তুমি যেন নতুন প্রাণ ফিরে পেতে। বৃষ্টি পরার সাথে তোমার জীবন ও সতেজ হয়ে যেতো।

গভীর রাতের বৃষ্টি তোমার খুব প্রিয় ছিলো। এখনো মনে স্থান পেয়ে আছে সেদিন রাতের বৃষ্টির গল্পগুলো। গভীর রাত বাসায় সবাই ঘুমে বিভোর। শুধু তুমি আমি জেগে ছিলাম। বৃষ্টি আসতেই তোমার আবদার ছাদে যাবে। আমি দুষ্টুমির ছলে না বলাতে তোমার নাক ফুলিয়ে ফুঁপিয়ে ফুপিয়ে কান্নামাখা মুখটি আমার মনে এখনো সতেজ হয়ে বেচে আছে। তোমার কান্নামুখো নিষ্পাপ মুখখানা দেখে আমি স্থির থাকতে পারি নি, তোমাকে কোলে করে আমি বৃষ্টিভেজা ছাদে নিয়ে আসি। আমি এখনো ভুলতে পারি নি আমি কোলে নিতেই তুমি আমার ঠোটজুড়ো কামড়ে ধরেছিলে। এ যেন শীতের বৃষ্টিতে উষ্ণতার আহবান।

ছাদে আসতেই বৃষ্টির প্রতিটি ফোটায় তোমার শরীরে জড়িয়ে থাকা লাল শাড়ীটি ভিজে গায়ে থাকা লাল ব্লাউজটি দেহের প্রতিটিবাজে লেপ্টে আছে। চুলগুলো ভিজে বুকের মাঝখানে এসে জমাট বেধে বুকেরবাজ’কে লুকিয়ে রেখেছে। আমি নিজ হাতের ছোঁয়ায় চুলগুলো সরাতেই তোমার লজ্জাকাতুর হাসির কাছে পরাজিত হয়ে গেলাম। তোমার খোলাচুলের সৌন্দর্যে আর নেশাভরা চোখের চাহনীতে আমি সব সময় পরাজিত বীরের মতো হয়ে যেতাম। বৃষ্টির তালে তালে তোমার খুলা চুলের নৃত্য খালি গলায় গানের সুরে আমি নেশাকাতর হয়ে থাকি। তোমার খোলা পিঠের প্রেমে আমি সব সময় কাতুর থাকি। বৃষ্টির প্রতিটি ফুটা তোমার গলা ছুঁয়ে খোলা পিঠ বেয়ে চলতো, আমি তোমার খোলা পিঠে নেশাকাতর এর মতো চেয়ে থাকতাম।

এই যে দেখো আজও গভীর রাতে বৃষ্টি পরছে, তোমার কি ইচ্ছে হয় না বৃষ্টিতে ভিজতে? নাকি আমার সাথে রাগ করে গাল ফুলিয়ে বসে আছো? আসবে না, তাইতো? ঘুমাও তুমি, আমাকে ঘুম পাড়িয়ে দেবার আগে তুমিই স্বার্থপরের মতো ঘুমিয়ে গেলে। কিভাবে একা করে আমাকে ফেলে চলে যেতে পারলে, একবারো কি মনে হলো না তোমার, এই বৃষ্টির রাত আমি একা কিভাবে অতিবাহিত করবো?
হ্যা তাইতো এই বৃষ্টির রাতেও তোমার ঘুমিয়ে থাকা কবরটির দিকে তাকিয়ে বৃষ্টির রাত শেষ করে দিচ্ছি। ঘুমাও তুমি আমি বসে আছি তোমার পাশে।

 মীর সজিব
print

কমেন্ট করুন