নির্জন পার্ক।- প্রমা আহমেদ

28234857_2037413219850595_8868058060862060787_o

লেখা ঃ প্রমা আহমেদ

অরণী আর সজল পাশাপাশি চুপ করে বসে আছে।নীরবতা ভেঙ্গে সজল বলে উঠলো,
“অরণী, তুমি অনেক শুকিয়ে গেছো।” তোমার বর তোমার কোনো কেয়ার নেয় না বুঝা যাচ্ছে।ঠিক তো বলেছিলে, ও অনেক ভালো।অনেক সুখে রাখবে তোমায়।তোমার চোখের কোনের কালো দাগ বলে দেয় তুমি সুখে নেই।এখন ও সময় আছে তাকে ছেড়ে দাও!

অরনী নিস্তব্ধতা ভেঙ্গে বলে উঠলো, বাদ দাও আমার কথা। সজল, “তুমি ও কি সুখে আছো?” অনেক রোগা হয়েছো তুমি। দেখে চেনা যায় না ।মায়বী চেহারার ছেলেটার চেহারায় আজ মায়া দেখছি না।
“সজল,তোমার বউ কি অনেক খারাপ ব্যবহার করে তোমার সাথে?” খাবার না খেতে খেতে আজ কি অবস্থা করেছো সে দিকে খেয়াল আছে?
সজল একটা পরামর্শ দেই, তুমি বরং তোমার বউ কে ছেড়ে দাও। ও তোমার উপযুক্ত না।


এরপর সজল-অরণী দু’জন দু’জনের দিকে তাকিয়ে মিষ্টি হাসি দিলো।সেই পুরনো হাসি যে হাসি তারা বিয়ের ঠিক আছে প্রেম করবার সময় দিত।
আজ সজল আর অরনীর দ্বিতীয় বিবাহ বার্ষিকী। আর প্লান করেই তারা পার্কে এসেছে প্রেম করতে।পুরনো দিনের স্মৃতিকে ফিরিয়ে আনতে স্বামী-স্ত্রী হিসেবে নয়, এসেছে প্রেমিক-প্রেমিকা হিসেবে…।

কমেন্ট করুন