একবার ডাকো -কোহিনূর আক্তার।

একবার ডাকো -কোহিনূর আক্তার।

একবার ডাকো
-কোহিনূর আক্তার

স্মৃতি ঝরা পাতার কথা
হৃদপিন্ডে বসানো পিন গুলো দিচ্ছে না
আজ ব্যথা ।
সেদিন ক্যাম্পাসে ছেঁড়া ঘাস পাতা গুলো ছুড়ে মারছিলাম তোমার খোলা বুকে।
তুমি এক মুখ হেসে বলছিলে, মারো না যদি থাকো
সুখে।
আশ্বিনের ঝিরঝির বৃষ্টিতে তখনও দুঃখ লুকালে
আমার হলুদ সন্ধ্যা দেখতে এসে অশ্রু বেয়ে নালা হলো
দু-গালে ।
আমিও ঠিক করে তাকিয়ে দেখতে পেলাম না তোমাকে,
বেদনার ঘুটঘুটে আঁধার ছিঁড়ে।
ছোট্ট একটি চিরকুটে লিখে দিলে , সাথী আমাকে ছেড়ে
বেশ থেকো, সুখের কোনো নীড়ে।
জানো ! আজকে অবেলায় আশ্বিনের ঝিরঝিরে বৃষ্টিতে
ভিজা তোমার লেখা আমার বুকের নির্মমতার পাতাগুলো পরিস্কার হয়ে ফুটে উঠেছে।
কাল-ছেঁড়া প্রেম আমার চিত্তের আকুলতায় জুটেছে।
মনে পড়ে তোমার ? সমুদ্রের বালুচরে লাভ এঁকে দিলে ।
উথাল ঢেউয়ের সব মুছে, পরশ ঠান্ডা বাতাস আমাকে শিউরে সব ভালোলাগার অনুভূতি কেড়ে নিল ।
আমার মনটা হারিয়ে গেলো কালো-কষ্টের বন্যায়।
তুমি আমাকে জড়িয়ে কপালে দিলে স্নিগ্ধ চুমু আর
চিৎকার করে বললে, ওহে ! সমুদ্রর কেনো করলে এ অন্যায়।
আমি হেসে বললাম, সমুদ্রর কি বোঝে আমার প্রেমের
তরে সেও তুচ্ছ সমুদ্রর ।
তুমি আমার হাত ধরে বললে, এই পথ সন্ন্যাসীর পাঞ্জাবীর ধার ধরে যেতে পারবে না বহুদূর ?
আমি হেসে বললাম,পারবো গো অনন্ত কাল অতৃপ্ত নিখিলের মাঝে শত দুঃখ কষ্ট সন্ধ্যা সাঁঝে তোমার প্রেম কুড়াতে ।
ওহে! নিখিলের রানী , আমার চিত্তের দেবী , সমাজ সংসারের তুচ্ছ দুঃখ গুলো পারবে না আমার গহীন ভালবাসার প্রদীপে পোড়াতে ?
সেই তো দহনের কসম করালে আমায়।
প্রেমোনিত্যে করুন শব্দে এখোনো ডাকি গো তোমায়।
ভালো আছি ,আছি গো পাগলের বেশে
একবার ডাকো আমায়, ছুটে যাবো অচেনা কোনো দেশে।
২৯/১০/২০
৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹
Headlines
error: আপনি আমাদের লেখা কপি করতে পারবেন নাহ। Email: Info@mirchapter.com