আর কিছু পরেই পাহাড়ে সন্ধানামে! পাহাড়ের ওপার থেকে উঠে আসে বিশাল চাঁদ, চারিদিকে ছড়িয়ে পড়ে তার আলো! জনমানব শুন্য পাহাড়শ্রেনি চাঁদের আলোয় হয়েওঠে চরম রহস্যময়!

দুর সমুদ্র থেকে বয়ে আসছে শিতল হাওয়া ! পাহাড় বনবনানী ঝোপ ঝাড়ের ভিতর দিয়ে আসতে আসতে নানান পাহাড়ি ফুল ফল গাছ পাতার গন্ধমেখে হাওয়া হয়ে উঠেছে মনরম আলসেমির আমেজে ভরা মদির সৌরভময়! হাওয়া আন্দোলিত করছে গাছ পাতা ঝোপ ঝাড়, পাতার উপরদিয়ে নেচে নেচে পিছলে যাচ্ছে চাঁদের কুহক আলো আর পাতার ছায়ারা অজশ্র মাছের ঝাক হয়ে ছুটে বেড়াচ্ছে ঝোপ ঝাড় গাছের ফাক ফোকর দিয়ে! এতক্ষণে পুরা পর্বতমালা জ্যন্ত হয়ে উঠেছে! বাতাসের মর্মর নিশ্বাস আর ফিসফাসের মাঝে নানান পোকা মাকড় ঝিঝির গানে মুখরতার মাঝে মাঝে সংগতি এবং তাল লয় সমৃদ্ধ কোন বাদ্যযন্ত্রর সুর হয়ে ঝরে পড়ছে রাতচরা পাখিদের বিচিত্র কলরব আর দুরাগত কোনো যন্তুর হুংকার যেন ড্রামের তাল সব মিলিয়ে এক অপরুপ সুর মুর্ছনা!

নরুহাব বড় একটা মহাদারুগাছের হেলানো গুড়িতে শরীর এলিয়ে বসে তোরিয়ে তোরিয়ে পরম তৃপ্তিতে উপভোগ করে মনরম স্বাদ আর সৌরভের রসালো জুমকাই সেই সাথে চাঁদের আলোয় ভরা পাহাড়ের গান আর হাওয়ার আদর!

পেটভরা খাবার পাহাড়ে ঘোরার অনাবিল ক্লান্তি আর নিশ্চন্ত আবাসন বসাথেকে তাকে ধীরে ধীরে শুইয়ে দেয় আর দ্রুত নিয়ে যায় ঘুমের দেশে…