তৃষ্ণা – ফাহমিদা আলী।

একটা কবিতা লিখার চেষ্টা করে চলেছি সেই কবে থেকে
আমার সমস্ত আবেগ, অনুভূতি আর সমস্ত সত্ত্বার সমন্বয়ে
যেখানে লিখিত হবে তোমায় চাওয়ার না পাওয়ার সবটুকু কাব্যগাঁথা
আমাকে বুঝতে না দিয়েও তুমি বুঝে যাবে সব, আপন অনুভূতিতেই।
তোমাকে পাবো না জানার পরেও, অপ্রাপ্তির শক্ত দেয়ালে আঘাত হানা
মায়া নয়, মোহ হয়ে তোমার এই আঘাত করার মানসিকতায় ভর করেই তবু ছুটে চলা
তুমিও কি জানতে এমনই হবে, বুঝেছিলে কখনও কি, নিজেই কি চাও?
নাকি, বোঝার আড়ালেই দুরন্ত সেই অবুঝপনাকে ভালোবেসেছিলে তুমিও।
বুকের ভেতর একটা অট্টহাসি প্রায়ই আনচান করে ওঠে, বেরিয়ে আসবে বলে
ছল করে চেষ্টা করলেও দুর্বোধ্য সেই দেয়াল টপকে আসতে পারেনি কখনও
ওখানেও ভয় তোমাকে হারানোর, কি জানি শাসিত অনুভূতি আবার কি চেয়ে বসে
হয়তো তোমার পুরোটাই চাই, কোনো ভাগাভাগি না রেখেই।
একটা নদীও আছে কষ্টের; রুধির ধারা হয়ে সারাক্ষণই বয়ে চলে আপন গতিতে
গড়ার নেই কিছুই, তবু চলে চেষ্টা অবিরাম, নতুন করে নতুন কিছু করার
একটা সাগর যদিও বা আছে, তবু আজন্ম তৃষ্ণায় ছটফটিয়ে ওঠে বারবার
সেটাও কেবল তোমাকে চেয়ে, তোমাকেই শুধু পাওয়ার।
ফাহমিদা আলী
04 07 2017