লকডাউনের দিনগুলোতে সময় কাটাবেন যেভাবে।

আপনিও নিশ্চয়ই ঘরে বন্দি। হয়তো ভাবছেন এই সময়ে কী করবেন এবং কীভাবে সময় কাটাবেন।
করোনা আতঙ্কে গোটা দেশ এখন লকডাউন। সরকার এবং বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নির্দেশিকা অনুযায়ী সকল মানুষই সময় কাটাচ্ছেন নিজেদের ঘরে। আপনার এই অবসর সময় কাটাতে খুবই সহায়ক হয়ে উঠবে এই গুরুত্বপূর্ণ টিপসগুলি-

* ঘর গোছানো এবং পরিষ্কার –
নানান ব্যস্ততার কারণে আমরা আমাদের বাসস্থানটিকে সঠিকভাবে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করে রাখতে পারি না। সেক্ষেত্রে এই লম্বা লকডাউন এর দৌলতে আপনার ঘরটিকে জীবাণুমুক্ত করতে রোজ ঘর পরিষ্কার করুন। ঘরের সমস্ত জিনিসপত্র সুন্দরভাবে গুছিয়ে রাখুন।

* বই পড়ুন –
অবসরের সেরা বন্ধু হতে পারে ‘বই’, সে গল্পের বইও হতে পারে বা জ্ঞানার্জনের বইও হতে পারে। যদি আপনি পড়তে ভালোবাসেন তবে এই অবসরে বিভিন্ন লেখক-লেখিকার বই পড়তে পারেন। পড়ার পাশাপাশি গল্পগুলি বাচ্চাদের কাছে তুলে ধরুন।

* ভাষা শিখুন –
ইংরেজিতে একটা প্রবাদ আছে ” More languages equal more opportunities” অর্থাৎ, যত ভাষা জানা থাকবে আপনার তত বেশি সুযোগ আসবে। তাই এই অবসর সময়ে নিজের পছন্দসই কিছু ভাষা শেখার উপর জোর দিন। এটি কেবল শিক্ষা নয়, আপনার ক্যারিয়ারকে এগিয়ে নিয়ে যেতেও সহায়তা করবে। বাড়িতে বসে বিভিন্ন ওয়েবসাইট এবং ইউটিউব চ্যানেলের মাধ্যমে আপনি বিভিন্ন ভাষার দক্ষতা অর্জন করতে পারেন।

* শুরু করুন ব্লগ লেখা –
বর্তমান দিনে অবসর সময় অতিবাহিত করার একটি দারুণ পদ্ধতি হলো ব্লগ লেখা। সুতরাং, আপনি যদি লেখালেখি করতে পছন্দ করেন তবে একটি ব্লগ সাইট খুলতে পারেন। এর মাধ্যমে কোনও বিষয় নিয়ে নিজের অভিমত প্রকাশ করুন। পছন্দসই কবিতা, গল্প ইত্যাদি লিখে ব্লগে পোস্ট করুন।

* বই পড়ুন –
অবসরের সেরা বন্ধু হতে পারে ‘বই’, সে গল্পের বইও হতে পারে বা জ্ঞানার্জনের বইও হতে পারে। যদি আপনি পড়তে ভালোবাসেন তবে এই অবসরে বিভিন্ন লেখক-লেখিকার বই পড়তে পারেন। পড়ার পাশাপাশি গল্পগুলি বাচ্চাদের কাছে তুলে ধরুন।

* শরীরচর্চা ও ধ্যান –
শুধু অবসর সময় কাটানোর পরিকল্পনা করলেই চলবে না, সময় কাটানোর পাশাপাশি নিজের শরীরকেও সুস্থ রাখতে হবে। তাই বিশেষজ্ঞদের মতে, নিজের অঢেল অবসর সময়কে ভালভাবে অতিবাহিত করতে নিয়ম করে দু’বেলা কিছু ফ্রি হ্যান্ড বা ব্যায়াম করুন পরিবারকে সঙ্গে নিয়ে। তবে বাড়ির বাইরে বা জিমে গিয়ে নয়, এই লকডাউনে বাড়ির ব্যালকনি বা ছাদে শুরু করুন শারীরিক চর্চা। এতে শরীর ভাল থাকবে। একঘেয়ে লাগলে রোজ সকালে বিকেলে করুন ধ্যান এবং প্রাণায়ম। তবে প্রাণায়াম লকডাউন মিটে গেলেও চালু রাখুন। কারণ, এগুলি মানসিক স্ট্রেসকে দূর করে।

* রান্না করুন –
কাজের চাপে বেশিরভাগ দিনই নিজের হাতে রান্না-খাওয়া হয়ে ওঠে না। বাইরের কেনা খাবার খেয়ে দিন কাটাতে হয় বেশিরভাগ মানুষকে। আপনি যদি রান্না করতে ভালবাসেন তবে এই লকডাউনে বানিয়ে ফেলুন নতুন ধরনের কিছু খাবার অথবা নিজের পছন্দের কিছু খাবার। তবে, এই সময়ে সুস্থ থাকতে অল্প পরিমাণ খাবার খান।

* গার্ডেনিং –
ঘরের ব্যালকনিতে টবে লাগানো গাছ অথবা বাড়ির বাগানে থাকা গাছের পরিচর্যা নিন।
রোজ সেগুলিতে জল দিন। নতুন ফুলের গাছ বাড়ির ব্যালকনি ও বারান্দাতে লাগান।

* বিনোদন –
অবসর সময়ে সাধারণত আমরা মোবাইলে ফেসবুক, ইউটিউব, টুইটার, ইনস্টাগ্রাম ইত্যাদি স্ক্রোল করে থাকি। তবে, এই অবসরে এগুলি ছেড়ে বাড়িতে বসেই পরিবারকে নিয়ে দেখুন সিনেমা। দিনের কোনও একটি সময়কে বেছে নিন পছন্দের গান শোনার জন্য। ধুলো জমে যাওয়া গিটার, হারমোনিয়ামকে বার করে এনে পুনরায় চর্চা শুরু করুন।