পর্দার পিছনের নারীরা কেন রোল মডেল হয় না? – মীর সজিব।

অনলাইনে এখন হুলুস্থুলে রয়েছে ‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ’  মিস ওয়ার্ল্ড এর এভ্রিল আর জেসিয়া কে তো মানুষ রোল মডেল হিসেবে মাথায় নিয়ে নিচ্ছেন। এভ্রিল মেয়ে হয়েও খুব ভালো বাইক রাইডার আর জেসিয়া বাকা দাত নিয়েই মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ। সৌন্দর্য আর দেহ প্রদর্শনী কি তাহলে রোল মডেল?

সৌন্দর্য আর দেহ প্রদর্শনী ছাড়াও এই দেশী  নারীরা পৃথিবীর বুকে রোল মডেল হয়ে আছে। আজ আমি কয়েকজন রোল মডেলের কথা ই বলবো।

আমাদের দেশের কয়জন মেয়ে আয়েশা আফরিন টুম্পার নাম শুনেছে? মেয়েটা ন্যানো টেকনোলজি কাজে লাগিয়ে কৃত্রিম ফুসফুস আবিষ্কার করে চিকিৎসা বিজ্ঞানে হুলুস্থুল লাগিয়ে দিয়েছে। তারা কেন মেয়দের রোল মডেল হবে না? কেন তাদের এই পরিশ্রম গবেষণার কাজ, সাফল্য সামনে নিয়ে আসা হচ্ছে না?

সালমা খাতুন নামটিকে নতুন করে পরিচয় করিয়ে দেবার প্রশ্নই আসে না। বাংলাদেশের প্রথম নারী ট্রেন চালক। নিজস্ব উদ্যোগ ও মেধায় নিজেকে রোল মডেল বানিয়ে নিয়েছেন, তিনি কি আমাদের দেশের মেয়েদের জন্য রোল মডেল হতে পারে না?

BIRI এর নাম আমরা অনেকে শুনেছি যা ধান গবেষণার জন্য বড় প্রতিষ্ঠান। সেটার উদ্ভিদ প্রজনন বিভাগের মুখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা কিন্তু একজন নারী তমাল লতা আদিত্য। তার হাত ধরে বাংলাদেশের কৃষকরা পেয়েছে ১০ টি নতুন জাতের ধান।

তানজিমা হাসেম ২০১৭ সালে ওডব্লিউএসডি- এলসেভিয়ার ফাউন্ডেশন পুরষ্কার এর জন্য মনোনয়ন পেয়েছেন।তিনি মানুষের ব্যাক্তিগত গোপনীয়তা সুরক্ষার কম্পিউটার নির্ভর একটি উপায় বের করেছেন।

তাসলিমা মিজি, সামিরা জুবেরী হিমিকা এবং সাবিলা ইনুন তাদের পরিচয় নতুন করে দেওয়া লাগবে না।তাদের সফলতার গল্প সবাই জানেন। টেকম্যানিয়া, টিম ইঞ্জিন, ডিক্যাস্টালিয়া ডটকমের এই তিনটা প্রযুক্তি নির্ভর প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাতা তারা। তাদের তৈরি প্রতিষ্ঠানে এখন অন্যরা চাকুরী করে।

২০১২ সালে সেলিমা আহমদ সেরা নারী হিসেবে ইসলামিক ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক পুরষ্কার পান। এই মহিলা উদ্যোক্তা দীর্ঘদিন থেকে দেশে নারী উদ্যোক্তাদের উৎসাহ এবং প্রয়োজনীয় সহায়তা দিতে কাজ করছেন। বাংলাদেশের এই মহিলা উদ্যোক্তাদের নিয়ে খবর বের হয় আমেরিকান পত্রিকায়। বিদেশীরা পুরষ্কার দেয়, সম্মানিত করে।

এমন অনেক নারী রয়েছে আমাদের দেশে, তারা কেনো আমাদের  রোল মডেল হচ্ছে না। রোল মডেল মানে কি নারীর দেহ প্রদর্শন?

print

কমেন্ট করুন