আপন জন এর সাথে যুদ্ধ কিসের- আহসান হাবীব।

আপন জন এর সাথে যুদ্ধ কিসের- আহসান হাবীব।

জীবনে আমরা যা কিছু করে থাকি সেগুলো আমার জীবনে বেঁচে থাকার তাগিদে করে থাকি তা না হলে আমাদের জীবন নাকি চলে না এটার জন্যই আর কিছু আমাদের কিছু বলার থাকে না ।

 

জীবনে বেঁচে থাকার তাগিদে যে অনেক কিছু করতে হয় সেটা আমিও ভালো করে জানি। যে বেঁচে থাকার তাগিতে অনেক কিছু করে সে মনে করে সেই একমাত্র যে বেঁচে থাকার জন্য এতো কিছু করছে অন্যা কেউ হয়তো এত কিছু করে না তারা এমনি এমনি পার হয়ে যায় তাদের জীবনে যুদ্ধ। যুদ্ধ একমাত্র সেই হয়তো করে যাচ্ছে জীবনের সাথে। যুদ্ধ ব্যাপারটা অনেক ধরনের হতে পারে সব থেকে বড় যুদ্ধ হলো নিজের সাথে যুদ্ধ করা। এটা এমন এক ধরনের যুদ্ধ যার বিপরীত পক্ষ আমি নিজেই।

 

এই যুদ্ধে হয়তো তুমি জীত যাবে তার থেকে আরো অনেক বড় আছে যেগুলো জীতলে হার তোমারই থাকে। এই যুদ্ধটাকে যে যেরকম  ভাবে দেখে আর কি, এটা হলো নিজের আপন জনেদের সাথে যুদ্ধ। নিজের আপন জনেদের সাথে যুদ্ধে সবসময় হার নিজেরই হয়। এর একমাত্র কারন হচ্ছে সে আপন আর কোনো কারনের দরকার নেই এটাই সব থেকে বড় কারন। এটা শুধু রত্তের সম্পর্কে হবে শুধু তাই না আরো অনেক ধরনের সম্পর্কে হতে পারে। এক কথাই বলতে গেলে  বলা যায় যে তুমি যাকে আপন ভাবো তার সাথে যুদ্ধে হার তোমারই থাকে।

 

আর যদি দুইজনই নিজেদেরকে আপন ভাবো তারপরও যুদ্ধ তাহলে বলা যায় তোমারা আসলে কেউ কাওকে কখনো আপন ভাবোইনি। কথাই বলা এর আগে যেটা ছিলো ওটা ছিলো লোক দেখানো কাজ যার কোনো মুল্য আমাদের সমাজে নেই বললেই বলা যায়। জীবনে পথ চলার পথে কারোর না কারোর হাততো ধরতেই হবে। এই কথাটা আমার ভীষন পছন্দের একটা কথা। এই কথাটার অনেক বড় তাৎপর্য আছে যা আসলে বলে বোঝানোর মতো না। আপন জনেদের সব সময় কাজে না আসলেও বিপদের দিন তারা অনন্ত পাশে থাকবে।

 

আবশেষে একটাই কথা বলবো যে প্রিয় মানুদের সাথে ঝামেলা বাড়িয়ে লাভ নেই। যত তাড়াতাড়ি ঝামেলা মিটিয়ে ফেলা যায় ততই ভালো।
কারন: আজকাল কবর দেওয়ার লোক তাই পাওয়া না।
Headlines
error: আপনি আমাদের লেখা কপি করতে পারবেন নাহ। Email: Info@mirchapter.com
google.com, pub-4867330178459472, DIRECT, f08c47fec0942fa0