বাংলা ব্লগে আমার পথ চলা ।

 ছোটবেলা কেটেছে মফস্বলে। মফস্বলের প্রাইমারি শেষ করে মাধ্যমিকও শেষ করেছি। মফস্বল হলেও আমাদের গ্রামে একটু আধুনিকতার ছোয়া ছিলো। উচ্চ শিক্ষিত লোক ছিলো তবে তাদের বাস ছিলো শহরে, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক ছিলো বেশ৷ গ্রামের অর্থনৈতিক দিক ভালো ছিলো প্রবাসীদের অর্থায়নে। প্রাইমারিতে বৃত্তি পরীক্ষায় কৃতকার্য হওয়ার ফলে আমার বড় ভাই আমাকে একটি মাল্টিমিডিয়া মোবাইল দিয়েছেন। তখন এসব মোবাইল যাদের হাতে থাকতো তাদেরকে পাওয়া ছিলো আকাশচুম্বী।
মোবাইলটি ছিলো Nokia 6680 মডেল এর। সেই সময়ের সবচেয়ে দামী মোবাইলের মধ্যে এইটি একটি। এই মোবাইল দিয়ে ছবি তোলা যেত, ভিডিও গান দেখা যেত এমনকি ভিডিও রেকর্ডিং করা যেত। এই মোবাইলটি ছিলো সেই সময়ের স্বপ্নের মতো।
এই মোবাইল দিয়ে ইন্টারনেট চালানো যেত। তবে গ্রামের মফস্বলে শহরের মতো wifi ছিলো নাহ। গ্রামীণফোন অথবা একটেল (রবি) সিমের নেটওয়ার্ক ছিলো ভরসা। কিন্তু এই নেটওয়ার্ক এখন সময়ের মতো এত স্পিড ছিলো নাহ। ঘরের ভিতরে তো চিন্তাই করা যেত নাহ। খোলা মাঠ বা বড় গাছের নিচে বসে ইন্টারনেট এর কিছুটা স্পীড পাওয়া যেত। এই স্পীডে মোবাইল ব্রাউজার দিয়ে Google এ সার্চ করতাম তাও ইংরেজিতে লিখতে হতো। তখন বিভিন্ন পিকচার দেখে এত খুশি হতাম তা ভাষায় প্রকাশ করার মতো না। ইন্টারনেট এর তখন কোন প্যাকেজ ছিলো নাহ। সেই সময়ে ২০ টাকার একটা মোবাইল রিচার্জ কার্ড লোড করে ইন্টারনেট কানেকশন চালু করতাম। মোবাইলের উপরে  E একটা লেখা আসতো তখন বুঝতাম ইন্টারনেট চালু হয়েছে। এভাবেই প্রথম আমার ইন্টারনেট জগতে প্রবেশ। তখনও বাংলা ভাষার তেমন ব্যবহার ইন্টারনেটে শুরু হয় নি। যদিও বাংলা কম্পিউটারে আসতো কিন্তু বিভিন্ন সফটওয়্যার ইন্সটল এর মাধ্যমে।
মধ্যমিকে পড়ার সময় সবেমাত্র অষ্টম শ্রেণী। তখন বড় ভাইয়া বিদেশ থেকে আসার সময় একটি ডেস্কটপ কম্পিউটার নিয়ে আসেন। সেই সময় গ্রামে ককম্পিউটার ছিলো দূর্লভ বস্তু। একমাত্র গঞ্জের বাজারে কয়েকটা কম্পিউটারের দোকান ছিলো। ককম্পিউটারের সাথে মানুষ তখনও অভ্যস্ত নয়। এখন তো ঘরে ঘরে একটা করে ল্যাপটপ। কোলের বাচ্চারাও মোবাইলে গান চালু না করলে খেতে চায়না। কত আপডেট হয়েছে দুনিয়া।
বড় ভাইয়া কম্পিউটার চালু করে ইন্টারনেট কানেকশন দিয়ে দিলেন। কম্পিউটার চালুর পর পরই আমি ডিরেক্ট Internet Explore ব্রাউজারে প্রবেশ করি৷ আমি আগের মতোই ইন্টেরনেট এর প্রতি দূর্বল ছিলাম। ইন্টারনেট আমাকে সব সময় কাছে টেনেছে। ব্রাউজারে তখন সার্চ দিলাম Prothom Alo লিখে, প্রথম আলো পত্রিকার লিংকে গেলাম কিন্তু বাংলা লিখা দেখতে পাচ্ছি না। যেখানে বাংলা লেখা সেখানে শুধু ছোট ছোট  ঘর। কিন্তু ইংলিশ লেখাগুলো স্পষ্ট  দেখা যাচ্ছিলো। যাইহোক অনেক কষ্ঠের বিনিময়ে বাংলা ফন্ট দেখার সৌভাগ্য হয়েছিলো।
এবার আসি ব্লগে আমার পথ চলা :
ইন্টারনেটে তখন অনায়েসে বাংলা লিখা দেখা যায় এবং পড়া যায়। গুগুলে সার্চ দিলেই বস্তা বস্তা বাংলা লিখা।খুব খুশি লাগতো মোবাইলে বাংলা লেখা পড়া যায়৷ তখন মাথায় একটা ভাবনা আসলো আমিও অনলাইনে বাংলা লিখবো। অনলাইনে আমার বাংলা লেখা দেখাবে। গুগুল তখন ছিলো অনলাইনে লেখার জন্য একটি অনলাইন প্লাটফর্ম।  সেটা ছিলো ব্লগস্পট ডট কম। ব্লগ স্পট ডট কমে একাউন্ট খুলে সেখানে বাংলা লেখা শুরু করি।
এখানে কিছুদিন লেখালেখি করার পর খুজে পেলাম বাংলায় একটি অনলাইন প্লাটফর্ম রয়েছে সেটি হলো সামহোয়্যারইন ইন ব্লগ। সেখানে অনেকে বাংলা লিখেন। আমিও তাদের ব্লগে একটা একাউন্ট খুলে লিখতে শুরু করি।
কিছুদিন সেখানেও লেখার পর অন্যের অধীনে থাকা ব্লগে যেন লিখতে একটা বোরিং ফিল হতো। তারপর মাথায় আসলো নিজে ব্লগ সাইট তৈরি করবো। যেখানে থাকবে আমার নিজস্ব স্বাধীনতা।  আমি আমার নিজের পছন্দমতো ডিজাইন করবো নিজস্ব মতবাদে চলবে আমার ব্লগ সাইট।
সেই চিন্তা থেকেই আজকের মীর চ্যাপ্টার ব্লগের পথচলা।

কমেন্ট করুন