বাংলাদেশ ভারতকে ৫০০ টন ইলিশ উপহার দেয়নি- সাদ বীন কাদের চৌধুরী।

প্রথমত, সত্য জানতে হবে…..

১. বাংলাদেশ ভারতকে ৫০০ টন ইলিশ উপহার দেয়নি। রপ্তানি করেছে কেজি প্রতি টাকায়। ২০১২ সাল থেকে বর্তমান সরকার ভারতে ইলিশ রপ্তানি বন্ধ রেখেছে। ভারত তিস্তার পানি দেয়নি বলে শেখ হাসিনা বলেছিলো তিস্তার পানি আসলে ইলিশ যাবে। এরপর রপ্তানি বন্ধ করে দেয়। অথচ এর আগে ২০০০ সাল থেকে ২০১১ সাল পর্যন্ত ভারতে প্রচুর ইলিশ রপ্তানি হতো। এতদিন বন্ধ থাকার পর ভারত সরকারের বিশেষ অনুরোধে ১০ তারিখ পর্যন্ত মাত্র ৫০০ টন রপ্তানির অনুমতি দিয়েছে। এটি কোন উপহার কিংবা দান নয়। বিক্রি করেছে মাত্র। তবে এতদিন নিষিদ্ধ থাকার পর পূজা উপলক্ষে বিক্রির অনুমতি দেয়াও এক ধরনের উপহার বলা যায়। ওকে ক্লিয়ার?
২. পেঁয়াজের দাম ভারতেও কেজি প্রতি ৬০-৮০ রুপি হয়ে গেছে। বাধ্য হয়ে ভারত নিজেও এবছর আর্জেন্ট পেঁয়াজ আমদানি করছে। যার কারনে ওরা রপ্তানি বন্ধ করে দিয়েছে। শুধুমাত্র বাংলাদেশে নয় ভারত যে সকল দেশে পেঁয়াজ রপ্তানি করতো সব দেশেই পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করেছে। ওদের নিজেদের বাজার নিয়ন্ত্রন করার জন্য এই কাজ করেছে। সুতরাং ইলিশের সাথে পেঁয়াজের কোন সম্পর্ক নেই। ক্লিয়ার?

দ্বিতীয়ত,

নিজের মাথা ও মগজ খাটিয়ে সত্য উপলব্ধি করতে হবে। নিজের জ্ঞান বিবেককে কিছু অনলাইন ভূয়া নিউজ পেপারের কাছে বন্ধক দিবেন না। নিজের শিক্ষা ও জ্ঞান কাজে লাগিয়ে সত্য জানার চেষ্টা করুন। মিথ্যা কখনো টিকেনা। এসব নিয়ে হায়হুতাশ না করে কিভাবে নিজের দেশে উৎপাদন বাড়ানো যায়, উন্নত প্রযুক্তি কাজে লাগানো যায় তা ভাবুন। দেশ ডিজিটাল হয়েছে আমাদেরকেও ডিজিটাল হতে হবে। চিন্তা চেতনায়, কাজে কর্মে উন্নত হতে হবে। কারো উপর নির্ভরশীল না হয়ে নিজের দেশের সক্ষমতা বাড়াতে হবে। ওকে? ক্লিয়ার?

কমেন্ট করুন