কে হবে মাসুদ রানা, বিচারকদের যোগ্যতা নিয়ে সংশয়।

বাংলা সাহিত্যের জনপ্রিয় চরিত্র মাসুদ রানাকে নিয়ে চলচ্চিত্র হচ্ছে ঢালিউডে। তবে মাসুদ রানা চরিত্রে কে অভিনয় করবেন তা এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি।
এদিকে এ ছবিটিকে ঘিরে শুরু হওয়া রিয়েলিটি শোয়ের বাছাই কার্যক্রম বিচারকদের দুর্ব্যবহার নিয়ে উঠেছে প্রশ্ন। অনুষ্ঠানের নাম ‘কে হবে মাসুদ রানা’। অনুষ্ঠানের একাধিক ক্লিপ ভাইরাল হয়েছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে। ডিএমপির এক উর্ধ্বতন কর্মকর্তা তেমনই একটি ভিডিও ফেসবুকে শেয়ার করে লিখেছেন, অনেক সভ্যতা, ভব্যতা শিখলাম তাদের (বিচারকদের) কাছে!
একাদিক ব্যাক্তি তাদের ফেসবুক টাইমলাইনে বিভিন্ন সমালোচনা করছেন এমনটায় ঃ
মনজুরুল হাসান রাজীব লিখেছেন, বিচারক নামক এক একটা অপদার্থ। সবাই যে যোগ্য যাবে তা তো না। মানুষকে ডেকে এভাবে অপমান করার মানে কি? তাদেরকে এই অধিকার আর সাহস কে দিয়েছে? তাছাড়া এমন হলে কোনদিনই কোন আত্মসম্মানবোধওয়ালা ছেলে মেয়ে এ ধরনের প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে যাবে না।
মো. নাসির মিয়া বলছেন, ‘শিক্ষকের প্রধান কাজ শিক্ষার্থীদের ভুল সংশোধন করা, অনুপ্রেরণা দেওয়া, উপদেশ দেওয়া, ভালোবাসা দেওয়া। অপমান মোটেই কাম্য নয়। কিন্তু দুঃখের বিষয় যোগ্যলোক বিচারক হওয়ার সুযোগ পায় না।’

https://www.facebook.com/bdislam24.wordpress/videos/1393305530817707/