কাশফুলেদের সাথে।

নীল আকাশে সাদা মেঘের ভেলা শরৎ ছাড়া আর কে ভাসাতে পারে? তাইতো শরতের বন্দনায় কবিগুরু বিমোহিত হয়েছেন বারবার। বর্ষা শেষে শরৎ আসে বলেই গাছের পাতারা হয় আরও স্নিগ্ধ, সজীব। চোখ মেললেই দেখা হয় বুনো ফুলের মাঝে রুপসী প্রজাপতি কিংবা ফড়িংয়ের সাথে। তবে ঋতুর রাণী শরতের সবচেয়ে বড় অনুষঙ্গ কাশফুল। আকাশে ধবধবে সাদা মেঘের শতদল আর মাটিতে মৃদু বাতাসে দোল খাওয়া কাশফুল যে চোখ ধাঁধানো সৌন্দর্য ছড়ায় তাতে থাকে শুধুই মুগ্ধতা।
ছুঁয়ে দেবে? কাশফুলের নরম পাপড়িতে রেখে দিয়েছি মন
এই হেমন্তেও কাশফুল ফুটেছে তুমি কী জানো?
শিশির ছুঁয়েছে কাশফুল, তুমি কী ছুঁবে আমার মন?
আহা শীত শীত প্রেম শিহরণ!
নগর জুড়ে বইছে দ্যাখো কাশফুল বাতাস
যেন কাশফুলের ছোঁয়া; ইটসুরকির ফাটলে ফাটলে
কাশফুল শুভ্র পাঁপড়ি গেঁথে আছে
কোথাও আবার উঁচু দালানের কার্নিশে
চড়ুই জুটির খুনসুটির আদলে ঠোঁটে গেঁথে কাশফুল
চিলেকোঠা নির্জনতায় বাসা বেঁধেছে খাসা
এ যে কাশফুল ভালোবাসা।
print

কমেন্ট করুন