কাঠালিয়া সমাজ কল্যাণ সংস্থার পথচলা।

{বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম }
—————————————–
আসসালামু আলাইকুম ,
“কাঁঠালিয়া সমাজ কল্যাণ সংস্থা”
গ্রুপের প্রিয় সদস্য বৃন্দ।আমি সোহেল রানা সিঙ্গাপুর প্রবাসীদের পক্ষ থেকে
সবার উদ্দেশ্য আমাদের সংস্থা সম্পর্কে সংক্ষিপ্ত বিবরন তুলে ধরছিঃ
ভূমিকা:
গ্রামে অনেকেই ব্যক্তি গত উদ্যোগে মানব সেবার কাজ করে থাকেন।সেই কাজটুকুই আমরা গ্রামের প্রবাসী, চাকুরিজীবী , ছাত্র সমাজ একত্রে মিলে মিশে আরো বড় পরিষরে করার উৎসাহ এবং আশেপাশে সব গ্রামেই এই রকম সেবামূলক সংগঠন পরিচালিত হয়ে আসছে।আমাদের গ্রামে কোন সংগঠন ছিল না।তাই আমাদের এই প্রচেষ্টা।
১.নাম:
কাঁঠালিয়া সমাজ কল্যাণ সংস্থা।

২.প্রতিষ্ঠা :
১১ই আগষ্ট ২০১৯ খ্রীস্টাব্দ।

৩.প্রতিষ্ঠা স্থান:
সিঙ্গাপুর প্রবাসীদের প্রাথমিক চিন্তা – ভাবনা, এবং অন্যান্য দেশে থাকা কিছু সংখ্যক প্রবাসীদের একান্ত প্রচেষ্টায় আল্লাহ পাকের অশেষ রহমতে সিঙ্গাপুরে প্রাথমিক ভাবে শুরু হয়।

৪.মনোগ্রাম :
নিজস্ব এবং সতন্ত্র একক মনোগ্রাম।
৫.কমিটি :
(ক)যেহেতু সিঙ্গাপুর থেকে যাত্রা শুরু হয়েছে, তাই প্রথমে সিঙ্গাপুরে অস্থায়ী কমিটি ঘটন করা হয়েছে।

(খ)সিঙ্গাপুর ছোট দেশ হওয়াতে সবার সাথে যোগাযোগ থাকে,জরুরি কোন মিটিং করা প্রয়োজন হলেও করা সম্ভব।

(গ)বর্তমান কমিটি অনির্দিষ্টকালের জন্য। প্রয়োজনে সংযোজন ও সম্প্রসারণ হতে পারে।
(ঘ)অন্য দেশ থেকেও কমিটির সদস্য পদ নেওয়া যেতে পারে।
(ঙ)দেশে কমিটি হলে সেটিই পূর্ণাঙ্গ কমিটি বলে বিবেচিত হবে। প্রয়োজনে প্রবাসের কমিটি থাকবে না হয় বিলুপ্ত হয়ে যাবে।
(চ) দেশে প্রত্যেক পাড়া এবং মহল্লা ভিত্তিক যুবকদের দ্বারা কমিটি গঠিত হবে।
৬.সদস্য:
সদস্য পদ উন্মুক্ত থাকবে।
৭.আয়ের উৎস :
প্রবাসী, চাকরি জীবি সহ দাতাদের দানই সংস্থার আয়ের উৎস।
৮.বর্তমান লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য:
প্রাথমিক,
(ক) দরিদ্র পরিবারের মাঝে ইফতার সামগ্রী বিতরন।
(খ)দরিদ্র পরিবারের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরন।
(গ)ঈদের সময় গ্রামের কিছু সংখ্যক পরিবারের ছেলে-মেয়েদের পোশাক বিতরন।
(ঘ) এতিম কিংবা দরিদ্র পরিবারের ছেলে-মেয়েদের লেখা পড়া করাতে সাহায্য সহযোগিতা করা।
(ঙ)অসচ্ছল পরিবারের অসুস্থ মানুষের চিকিৎসা করতে পাশে ধারানো। ইত্যাদি ইত্যাদি…. উদ্দেশ্য গুলো সংস্থার সামর্থ্য অনুযায়ী পরিচালিত হবে।
৯.ভবিষ্যৎ লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য:
মহান সব উদ্যোগ সংস্থার ভবিষ্যৎ অবস্থানের উপর নির্ভর করবে।
##প্রধান এবং অন্যতম লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য হল আমাদের মাঝে একতা বজায় রাখা।এবং গ্রামে মিলে মিশে চলা।এবং ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য একটি আদর্শিক গ্রাম রেখে যাওয়া।
আর আমাদের কার্যক্রম আগামী রমজান থেকে শুরু করতে চাই। এখন আমরা সাঙ্গটনিক দিক এবং প্রচার – প্রচারণা ও অর্থ যোগানের দিকে মনোযোগ দেওয়া হচ্ছে।
****পরে বর্তমান পরিচালনা কমিটির তালিকা ও বিকাশ নাম্বার দেওয়া হবে গ্রুপে।
**** আরো বিস্তারিত জানতে চাইলে গ্রুপে কিংবা বর্তমান পরিচালনা কমিটি অথবা সিঙ্গাপুর প্রবাসী যে কারো কাছ থেকে জেনে নিতে পারবেন।
++ এখন আপনার আমার সবার আন্তরিক প্রচেষ্টা, সহযোগিতা ও সুপরামর্শ প্রয়োজন। আর প্রয়োজন যাদের সাথে যাদের যোগাযোগ আছে তাদেরকে সংস্থার বিষয়টি জানিয়ে গ্রুপে এড করা। এবং সংস্থার সাথে জড়িত করা।কারন এটা গ্রামের সংঘটন, কারো ব্যক্তি গত নয়।
#সবার প্রতি আহবান থাকল গ্রাম এবং সংস্থার বিষয়ে গ্রুপে মতামত প্রকাশ করার।
★★আমার লেখায় কোন রকম ভুল হয়ে থাকলে ক্ষমা করে দিয়েন।★★

কমেন্ট করুন