এই সময়ে পা এর যত্ন।

আমাদের যে যে বিষয়গুলি খেয়াল রাখা উচিত যেমন পা পরিষ্কার পরিছন্ন রাখা, নরম ও মসৃণ রাখা। সাধারণত পায়ের ত্বক শুষ্ক ও শক্ত ধরণের হয় ফলে যত্ন না নিলে আরও শক্ত ও কালচে হয়ে যায়। যা থেকে পরে আরও সমস্যা হতে পারে। ঘরে বা পার্লার থেকে পায়ের যত্ন নেওয়া শুরু করে দিন। কয়েকটি সহজ উপায়ে আপনি অনায়াসে পায়ের যত্ন নিতে পারেন।
আভ্যন্তরীণ যত্ন :
কথায় আছে শরীর ভিতর থেকে সুস্থ্য থাকলে তার ঝলক বাইরে প্রকাশ পায়। শরীর ভিতর থেকে ঠিক থাকা খুবই জরুরী। প্রতিদিন নিয়ম করে নানা টিপস ব্যবহার করা হয়তো সম্ভব নয়, কিন্তু কয়েকটি বিষয় মেনে চললে শরীরের যত্ন নেওয়া সম্ভব। যেমন পরিমান মেপে নিয়মিত জল খাওয়া প্রয়োজন শরীরের জন্য। শরীরকে সতেজ রাখতে জলের পর্যাপ্ত পরিমান যোগান শরীরে প্রয়োজন। জল শরীরের যাবতীয় সিস্টেম পার্টকে সঠিক ভাবে চালনা করে। জলে থাকা উপাদান ত্বককে সতেজ রাখে ও ময়শ্চার প্রদান করে ভিতর থেকে। ফলে বাইরে থেকে স্কিন গ্লো করে। দেখতে সুন্দর লাগে। ফলে পা দেখতে সুন্দর লাগে, নরম ও মসৃণ থাকে।
মালিশ :
সারাদিন পায়ের ওপর নানা ধকল যায়। তাই দিনের শেষে পায়ের বিশ্রাম দরকার। পায়ের বিশ্রামের সাথে সাথে নিউট্রিশান দরকার। পায়ের মালিশ অবশ্যই করুন। রোজ করা সম্ভব নয়। কিন্তু চেষ্টা করুন সপ্তাহে ২ বার মালিশ করার। তেল হালকা গরম করে পায়ে মালিশ করুন ভালো করে। এর ফলে পায়ে আরাম হওয়ার সাথে সাথে পায়ের যত্ন নেওয়া হয়ে যাবে।

ময়শ্চারাইজার :
আমাদের শরীরের অন্যান্য অংশ কভার থাকলেও বেশির ভাগ সময় পা উন্মুক্ত থাকে। ফলে বাইরের ধুলোবালি ময়লা দ্বারা কমবেশি জর্জরিত হয় প্রতিনিয়ত। তাই পায়ের ত্বক বেশি রুক্ষ ও শুষ্ক হয়ে ওঠে। তাই যত্ন নিতে ময়শ্চারাইজার লাগানো প্রয়োজন। দিনে ২ থেকে ৩ বার ভালো করে পা ধুয়ে ময়শ্চারাইজার লাগানো যেতে পারে। স্নানের পর, বাইরে থেকে ঘরে এসে আর রাতে ঘুমানোর আগে, একবার করে ময়শ্চারাইজার লাগানো ভালো। এতে পা নরম ও মসৃণ হওয়ার পাশাপাশি দেখতে সুন্দর হয়।

পা পরিষ্কার রাখা:
পা সবসময় পরিষ্কার রাখা ভীষণ জরুরী। পায়ে ময়লা জমতে দেবেন না। বাইরে থেকে এসে ভালো করে পা ধুয়ে নেওয়া উচিত। মাঝে মাঝে হালকা গরমজলে অল্প শ্যাম্পু দিয়ে তাতে পা ডুবিয়ে কিছুক্ষণ বসে থাকুন। ভালো কোন ফুট ফাইলার দিয়ে আস্তে আস্তে ঘোষে নিন। ময়লা বেরিয়ে যাবে। সপ্তাহে একবার যদি নিয়ম করে এটা করা যায়, তাহলে পায়ের রূপ বদলে যাবে। সুন্দর হয়ে উঠবে পা। সুন্দর পা কে না চায়!
পায়ের আরাম :
সারাদিনের নানা কাজের পর পায়ের আরাম দরকার হয়। হালকা গরমজলের সেঁক দিতে পারেন। তাছাড়া হালকা গরমজলে অল্প নুন দিয়ে তাতে পা ডুবিয়ে খানিকক্ষন বসে থাকতে পারেন। এতে পায়ে আরাম হবে। সারাদিনের ক্লান্তি কমে আসবে।